বুধবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৩

ফেসবুক ব্যবহারকারীদের নিউজ ফিডে আবার পরিবর্তন এনেছে!

প্রতিনিয়ত ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের ওয়েব সাইটে পরিবর্তন করছে, এবার নিউজ ফিডে স্টোরি ভিউতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এই পরিবর্তন মোবাইল এবং ওয়েব উভয় ক্ষেত্রেই দর্শনীয় হবে।
ফেসবুক তাদের সাইটে স্টোরি ভিউতে বিশেষ মনোনিবেশ করেছে, এখন থেকে ব্যবহারকারীরা যদি নিউজ ফিডের কোন স্টোরিতে ক্লিক করে তবে সেই বিষয়ের সাথে মিল রয়েছে এমন আরও কিছু স্টোরি তার নিউজ ফিডে দেখা যাবে।
এছাড়া কোন ব্যবহারকারীর বন্ধু তালিকায় আছে এমন কেউ যদি কোন পেইজ পোস্টে কমেন্ট বা লাইক দেয় তবে ঐ ব্যবহারকারীর টাইম লাইনে উক্ত পেইজ এবং সাথে ঐ পেইজের সাথে মিল রয়েছে এমন আরও কিছু পেইজ বা ঐ সব পেইজের কোন না কোন পোস্ট দেখা যাবে।


এই পরিবর্তন বিষয়ে ফেসবুক জানিয়েছে, “আমরা লক্ষ্য করছি আমাদের সাইটের ব্যবহারকারীরা নিউজফিডে আসা বিভিন্ন আর্টিকেল পড়তে ভালোবাসেন সুতরাং আমরা এটা নিশ্চিত করতে চাই যেন ব্যবহারকারীদের নিউজ ফিডে ফেসবুকে জনপ্রিয় এমন সব আর্টিকেল দেখা যায়।”
এর অর্থ আপনার বন্ধু যদি কোন আর্টিকেলে লাইক কমেন্ট করে তবে সেই আর্টিকেল এবং ঐ আর্টিকেলের মত আরও কিছু জনপ্রিয় আর্টিকেল আপনার নিউজফিডে ভেসে উঠবে! এই পরিবর্তন মোবাইল, ট্যাবলেট, ওয়েব সকল ডিভাইস দিয়েই দৃশ্যমান হবে।
ফেসবুক আরও জানিয়েছে,”নিউজফিডের এই নতুন পরিবর্তনের ফলে ব্যবহারকারীরা তাদের বন্ধুরা কোন আর্টিকেলে কি কমেন্ট করছেন তা সম্পর্কে জানতে পারবেন, একই সাথে ঐ রকম অন্যান্য আর্টিকেলে কি কি উঠে এসেছে তাও জানতে পারবেন। যেকোনো আর্টিকেলের কমেন্ট বক্সে ক্লিক করলেই ব্যবহারকারীরা সেখানেও জনপ্রিয় মন্তব্য সমূহ দেখতে পাবেন।”
ফেসবুকের এই পরিবর্তনই শেষ পরিবর্তন নয়, বিভিন্ন সময় ফেসবুক তাদের সাইটে ব্যবহারকারীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন পরিবর্তন নিয়ে আসছে।

মঙ্গলবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৩

স্যামসাং আনছে ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার স্মার্টফোন

স্মার্টফোনে ক্যামেরা প্রযুক্তিকে আরও একধাপ সামনে এগিয়ে নিয়ে গেল দক্ষিণ কোরিয়ার প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। পরবর্তী প্রজন্মের গ্যালাক্সি সিরিজের স্মার্টফোনের সঙ্গে ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যুক্ত করছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেট এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে।
এদিকে কোরিয়াভিত্তিক ওয়েবসাইট ইটি নিউজের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০১৪ সালের মাঝামাঝিতে নতুন মোবাইল পণ্য বাজারে আনবে স্যামসাং যাতে ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা থাকবে। স্যামসাংয়ের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে বলে ইটি নিউজ দাবি করেছে।
বেশ কিছুদিন ধরেই প্রযুক্তিবিশ্বে স্যামসাংয়ের নতুন ‘গ্যালাক্সি এস ৫’ নিয়ে গুঞ্জন উঠেছে। সিনেট, ম্যাশেবল প্রভৃতি প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইটগুলোর তথ্য অনুযায়ী, আগামী বছর দুই ধরনের গ্যালাক্সি এস৫ বাজারে আসতে পারে যার একটি হবে ধাতব কাঠামোর এবং আরেকটি বর্তমানে বাজারে আসা গ্যালাক্সি এস৪-এর আপডেট। এ স্মার্টফোনে ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা থাকতে পারে বলেই প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইটগুলোতে তথ্য প্রকাশিত হয়। তবে এবারে স্যামসাংয়ের সূত্রের বরাতে ইটি নিউজ দাবি করেছে, স্মার্টফোনের ক্যামেরা প্রযুক্তিকে আরও উন্নত করছে স্যামসাং। পরবর্তী প্রজন্মের স্মার্টফোনে তাই ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যুক্ত করতে পারে প্রতিষ্ঠানটি।
এদিকে মার্কিন বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে এখন উন্নত ক্যামেরা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে উঠেছে।
স্যামসাং ছাড়াও স্মার্টফোনে উন্নত ক্যামেরা যুক্ত করতে এলজি, নকিয়া, অ্যাপলের মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলোও জোর দিচ্ছে। নতুন স্মার্টফোন সম্পর্কে শিগগিরই তথ্য প্রকাশ করবে স্যামসাং।

অনলাইনে কাজ পেতে হলে

ইচ্ছা, ধৈর্য আর পরিশ্রম করলে অনলাইনে অভিজ্ঞতা ছাড়া ঘরে বসেই আয় করা সম্ভব। এ বিষয়ে যারা নতুন ও আগ্রহী, তাঁদের জন্য অনলাইনে আয় বিষয়ক এই পরামর্শ দিয়েছেন ইল্যান্সের কান্ট্রি ম্যানেজার সাইদুর মামুন খান।
মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে ধারণা নেওয়া
নতুন অবস্থায় একজন ফ্রিল্যান্সারের মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে ধারণা একেবারে না থাকতে পারে। তবে সঠিকভাবে কাজ করার ক্ষেত্রে এ সম্পর্কে পূর্ণ ধারণা থাকা প্রয়োজন। বেশির ভাগ ফ্রিল্যান্সারই এ ধারণা পাওয়ার জন্য বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটের গ্রুপে প্রশ্ন করে থাকেন। অথচ, প্রতিটি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে তাঁদের হেল্প সেন্টার থাকে, যেখানে অনেক সঠিক তথ্য পাওয়া যায়। একজন ফ্রিল্যান্সারের নিয়মিত এই পোস্টগুলো দেখা উচিত। ভালোভাবে জানার পরেই মার্কেটপ্লেসে কাজের জন্য বিড করা বা কাজ করা উচিত।
বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করা
আমরা যেমন একটি কম্পিউটার কিনতে গেলে শুধু একটি কম্পিউটারের কেসিং বা বক্স কিনি না, এর সঙ্গে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশও কিনি। তেমনি, যখন কোন ক্লায়েন্ট একজন ফ্রিল্যান্সারকে কাজে নিয়োগ দেন তাঁর কাছ থেকে কাজের ক্ষেত্রে পরিপূর্ণ ও দক্ষ পেশাদারিত্বই আশা করেন। এক্ষেত্রে একটি প্রোফাইল তৈরি করাই যথেষ্ট নয়, একজন ফ্রিল্যান্সারকে অবশ্যই প্রমাণ করতে হবে কাজটি করার জন্য তাঁর কি যোগ্যতা আছে। বিশ্বাসযোগ্যতা তৈরি করতে এবং যোগ্যতা প্রমাণ করতে একজন ফ্রিল্যান্সার দুটি কাজ করতে পারেন-
দক্ষতার পরীক্ষা
একজন ফ্রিল্যান্সারের স্কিল টেস্টের মাধ্যমে তিনি কি কাজ করতে পারেন সে সম্পর্কে জানতে পারেন। ফ্রিল্যান্সার সাইটগুলোতে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য স্কিল টেস্টের ব্যবস্থা আছে, যেখান থেকে স্কিল টেস্ট দিয়ে আপনার দক্ষতা যাচাই করা খুবই সহজ। এই টেস্টগুলো বিনামূল্যে দেওয়া যায় এবং কেউ যদি টেস্টে খারাপ করেন তাহলে ফলটি লুকিয়ে রাখতেও পারবেন এবং আবার ১৪ দিন পরে পরীক্ষা দিতে পারবেন। যদি ফ্রিল্যান্সার তাঁর প্রোফাইলে ভালো স্কোর দেখাতে পারেন, তাহলে কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে নিশ্চয়তা অনেকাংশে বেড়ে যায়।
পোর্টফোলিও তৈরি
স্কিল টেস্ট প্রমাণ করে বৈষয়িক জ্ঞান, আর পোর্টফোলিও প্রমাণ করে একজন ফ্রিল্যান্সারের দক্ষতা এবং হাতে কলমে কাজ করার অভিজ্ঞতা। একজন নতুন ফ্রিল্যান্সার এর উচিত যত বেশি পোর্টফোলিও সংযোগ করা। ওয়েব ডেভেলপার তাঁর ডেভেলপ করা সাইটের স্ক্রিন-শট নিয়ে আপলোড করতে পারেন, এবং গ্রাফিকস ডিজাইনার তাঁর ডিজাইন তৈরি করে প্রোফাইলে যুক্ত করে দেখাতে পারেন। বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজগুলো সংযুক্ত করতে পারেন স্কিল হিসেবে। সার্ভিস হোল্ডাররা তাদের সার্টিফিকেট দিয়ে দিতে পারেন অভিজ্ঞতা হিসেবে। সর্বোপরি কোন প্রোফাইলের পোর্টফোলিও একজন ফ্রিল্যান্সার যে বিষয়ে দক্ষ সে বিষয়ে তার পরিপূর্ণ দক্ষতা আছে সেটা প্রমাণ করে।
নিজের প্রচারণা চালানো
নিজের ঢোল নিজে পেটানো কথাটি খারাপ শোনালেও একজন ফ্রিল্যান্সারের ক্ষেত্রে এটি গুরুত্বপূর্ণ। আপনাকে যেহেতু আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক মার্কেটে কাজ করতে হবে তাই আপনার পরিচিতি থাকা আবশ্যক। ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে নিজের অবস্থান তৈরি করতে আপনার ত্রুটিমুক্ত প্রোফাইল এর পাশাপাশি নিজেকে বিভিন্নভাবে তুলে ধরতে হবে। তাই সম্ভব হলে নিজের একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করা ভালো। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ সাইটের প্রোফাইল ও পেজের মাধ্যমে আপনার এবং আপনার বিভিন্ন সেবা তুলে ধরতে পারেন। অবশ্যই প্রফেশনাল ছবি ও তথ্য শেয়ার করা উচিত। সামাজিক যোগাযোগ সাইটে আপনার পার্সোনালটি নষ্ট হয় এমন কোন কিছু করা উচিত নয়। অন্যান্য ফ্রিল্যান্সারদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ প্রয়োজন। এতে তাদের মাধ্যমে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।
আশা করি সবার উপকারে আসবে লেখাটি।

ড্রোন দিয়ে অনলাইনে কেনা পণ্য আকাশ পথে বাসায় পৌঁছে দেবে অ্যামাজন!


 

বিশ্ব বিখ্যাত অনলাইন বিক্রয় প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রধান Jeff Bezos জানিয়েছেন ভবিষ্যতে অ্যামাজন তাদের অর্ডার কারীদের বাসার সামনে পণ্য পৌঁছে দিতে রিমোট কন্ট্রোল ড্রোন ব্যবহার করবেন।
ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছে একই সাথে তারা এ ধরণের ড্রোনে করে পণ্য পরিবহণের চিত্র ধারন করে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে অ্যামাজন থেকে ওয়ার্ডার করা পণ্য ড্রোনে করে মাত্র ৩০ মিনিটে গ্রাহকের বাড়ির দরজার সামনে সরবরাহ করা হচ্ছে।
এদিকে ঘোষণা দিলেও আমেরিকার এই বিখ্যাত অনলাইন খুচরা বিক্রয় কোম্পানির পণ্য সরবরাহে ড্রোন ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক ছাড়পত্র পেতে এখনও দেরি আছে ফলে এটি সরাসরি গ্রাহক সেবায় আসতে আরও ৩ থেকে ৪ বছর সময় লাগবে বলেই মনে করা হচ্ছে।
অ্যামাজন কর্তৃপক্ষের প্রচারিত ভিডিওতে দেখা যায় একটি ছোট উড়োযান যাতে ৮টি ছোট হেলিকপ্টারের পাখা লাগানো এবং ৪টি পায়া লাগানো, সম্পূর্ণ ড্রোন ২.৫ কেজি পণ্য পরিবহণ করতে পারে। এটি ১০ মাইল দূরতে মাত্র ৩০ মিনিটের মাঝে উল্লেখ্য ওজনের পণ্য পৌঁছে দিতে সক্ষম।
ড্রোনের নিচের দিকে একটি প্লাস্টিকের কন্টেনার থাকবে এবং তাতে অ্যামাজন সাপ্লাই কর্মীরা অর্ডার করা পণ্য দিয়ে দিবে। নির্দেশনা অনুযায়ী নির্দিষ্ট গ্রাহকের বাড়ির সামনে চলে যাবে অ্যামাজনের পাঠানো পণ্য এবং ড্রোন।
Jeff Bezos বলেন, “এটি অনেক পরিবেশ বান্ধব একই সাথে ট্রাফিক সমস্যা কমাতেও এই প্রযুক্তি অনেক সাহায্য করবে।”
এদিকে আমেরিকার ফেডারেল ব্যুরো অব এভিয়েশান এর প্রধান Michael Huerta জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত প্রায় ৭,৫০০ টি ক্ষুদ্র আকৃতির ড্রোন আমেরিকার আকাশে পণ্য পরিবহণ সহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার হওয়ার জন্য অপেক্ষায় আছে, আশা করা যায় বছর চারেকের মাঝেই এসব ড্রোন মার্কিন আকাশে দেখা যাবে।
যদি সত্যি এধরণের পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত হয় তবে Wal Mart সহ পিজা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান সমূহ এর থেকে বেশি উপকৃত হবে।

রবিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৩

এবার স্বাস্থ্য সেবার মোবাইল অ্যাপস

স্বাস্থ্য সেবার মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন (অ্যাপস) তৈরি নিয়ে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে আইডিয়া উদ্ভাবন বিষয়ক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে । এই কর্মশালায় স্বাস্থ্য সেবার উপর বিশেষজ্ঞ কর্মকর্তারা মোট ৫৮টি অ্যাপস আইডিয়া উপস্থাপন করেন। এর মধ্য থেকে ১৫টি আইডিয়াকে মোবাইল অ্যাপস তৈরির জন্য চুড়ান্ত হয়।

শনিবার আগারগায়ে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়’ সম্মেলন কক্ষে এই আইডিয়া উদ্ভাবন বিষয়ক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।
কর্মশালায় স্বাস্থ্যসেবায় মোবাইল অ্যাপস ব্যবহারের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন বিশেষজ্ঞরা ।
কর্মশালায় আইডিয়া ও গ্রুপওয়ার্ক ডিস্ট্রিবিউশনসহ উপস্থাপনা সমূহ গ্রহণ করেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান।

অনুষ্ঠানের উপস্থিতি ছিলেন সাবেক স্বাস্থ্য উপদেষ্টা প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী এবং পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মো. আব্দুল করিম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রফেসর এ.কে. আজাদ এবং তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের কর্মসূচী পরিচালক ও উপসচিব ড. মোহাম্মদ আবুল হাসান, ই.এ.টি.এল এর সিইও ডা: নিজাম উদ্দীন আহম্মেদ এবং ড. সাদাত
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের পার্টনার হিসেবে ই.এ.টি.এল এবং এম.সি.এল. এই প্রকল্প বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছে।
ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন 

সবচেয়ে পাতলা স্মার্টফোন বাংলাদেশে

বিশ্বের সবচেয়ে পাতলা স্মার্টফোন হুয়াউই অ্যাসেন্ড পি৬ এখন বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। গতকাল শনিবার ঢাকায় আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দেশের বাজারে ৬.১৮ মিলিমিটার পুরুত্বের এ স্মার্টফোন বিক্রি শুরুর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে এ ফোনের বিস্তারিত জানান হুয়াউই টেকনোলজি বাংলাদেশ লিমিটেডের পরিচালক (ডিভাইস বিজনেস) মরগান লিউ। এ ছাড়া বক্তৃতা করেন হুয়াউই বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বেকার জোহ, পরিচালক মো. সাফায়েত আলম এবং কিউ মোবাইল লিমিটেডের পরিচালক মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দীন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, অ্যাসেন্ড পি৬ স্মার্টফোনে রয়েছে ১.৫ গিগাহার্টজ কোয়াড-কোর প্রসেসর। এর রয়েছে ধাতব আবরণ। ৪.৭ ইঞ্চি পর্দা, ৮ মেগাপিক্সেল পেছনের এবং ৫ মেগাপিক্সেল সামনের ক্যামেরা রয়েছে পি-৬-এ। অ্যান্ড্রয়েড ৪.২.২ অপারেটিং সিস্টেমে চলে এটি। এর টাচস্ক্রিনে আছে ‘ম্যাজিক টাচ’ প্রযুক্তি, ফলে হাতমোজা পরেও এতে কাজ করা যাবে। দেশের বাজারে এটি পাওয়া যাবে ৩৪ হাজার ৯৯০ টাকায়।
ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন 

হুয়ায়ে’র ম্যাজিক টাচ স্মার্টফোন বাজারে

অধিক স্ক্রিন সংবেদনশীল সুবিধার তিনটি নতুন থ্রিজি স্মার্ট ফোন দেশের বাজারে অবমুক্ত করলো তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক সলিউশন প্রোভাইডার হুয়াওয়ে বাংলাদেশ।  অ্যাসেন্ড পি৬, জি ও ওয়াই মডেলের এই সেলফোন গুলোতে রয়েছে ‘ম্যাজিক টাচ’ সুবিধা  যার ফলে হাতে গ্লাভস বা অন্য কোনো আবরণ থাকলেও দ্রুত সাড়া পাওয়া যাবে।

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ৬.১৮ মিমি পরিমাপের স্লিম এই স্মার্টফোনের মোড়ক উন্মোচন করেন টেকনলজিস বাংলাদেশ লিমিটেডের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার বেকার জোহ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডিভাইস বিজনেস ডিরেক্টর মরগান লিউ, হুয়াওয়ে টেকনলজিস বাংলাদেশ লিমিটেডের ডিরেক্টর, মার্কেটিং অ্যান্ড করপোরেট অ্যাফেয়ার্স মো. সাফায়েত আলম এবং কিউ মোবাইল লিমিটেডের ডিরেক্টর (অপারেশন) মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দীন।

স্মার্টফোনটি দেশের কিউ মোবাইল রিটেইল শো-রুমে ও অন্যান্য সাধারণ মোবাইল ফোনের পাশাপাশি সিঙ্গার শো-রুমে পাওয়া যাবে বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

এসময়  হুয়াওয়ের প্রোপাইটরি ইমোশন ইউ আই এর কারণে অবমুক্ত করা ফোন তিনটি স্মার্টফোন জগতের স্টার বলে দাবি করেন হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার রিচার্ড ইউ।
ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন

৮৯ ভাগ ওয়াই-ফাই হটস্পট অনিরাপদ

উন্মুক্ত ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট ব্যবহারের কারণে পর্যটকদের ঝুঁকির মুখে পড়তে হচ্ছে।
ইয়াহু নিউজে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অধিকাংশ মার্কিন পর্যটক অনলাইন হ্যাকিং বিষয়ে জানলেও তাদের খুব অল্পসংখ্যকই এ থেকে রক্ষার পদ্ধতি জানেন।

ভোক্তা নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান অ্যাংকরফ্রির এক জরিপে জানা গেছে, আমেরিকার শতকরা ৮৪ ভাগ পর্যটক পাবলিক ওয়াই-ফাই ব্যবহারের সময় পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেন না। ফলে তাদের কম্পিউটারের তথ্য সাইবার অপরাধী ও হ্যাকারদের কাছে উন্মুক্ত থাকে।

সূত্র জানিয়েছে, শতকরা প্রায় ৮৯ ভাগ ওয়াই-ফাই হটস্পট অনিরাপদ। স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট ডিভাইসের জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যবহারকারীদের তথ্য হারানোর ঝুঁকি বাড়ছে।

জরিপে জানা গেছে, শপিং মল বা পর্যটকবহুল এলাকাগুলোতে ল্যাপটপের তুলনায় স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটের মাধ্যমে অনিরাপদ ওয়াই-ফাই ব্যবহারের প্রবণতা তিনগুণ বেশি। এছাড়া এ প্রবণতা কফি শপ ও রেস্টুরেন্টে দ্বিগুণ এবং এয়ারপোর্টে দেড়গুণ বেশি।

অ্যাংকরফ্রির প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ডেভিড গরদিনস্কি বলেন, “ট্যাবলেট, স্মার্টফোন ও হটস্পটের ছড়াছড়িতে অনেক পর্যটকই জানেন না যে, তারা ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে অন্যদের সঙ্গে সংবেদনশীল তথ্য বিনিময় করছেন। অধিকাংশ পর্যটকই অনলাইন হ্যাকিং বিষয়ে জানলেও তাদের খুব অল্পসংখ্যকই এ থেকে রক্ষার পদ্ধতি জানেন।”

অনলাইন চোর থেকে শুরু করে ম্যালওয়ার ও অনাকাঙ্ক্ষিত অনুপ্রবেশকারীর সংখ্যা পাবলিক ওয়াই-ফাইতে দ্রুত বাড়ছে বলেও জানান গরদিনস্কি।
ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন

ফেইসবুকের লিংক সেইভ

এখন থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা আগের দেখা কোনো তথ্যের লিংক চাইলে পরেও দেখতে পাবেন। এ জন্য শুধু প্রয়োজন ফেইসবুকের ‘সেইভ ফর লেটার’ ফিচারটি। সম্প্রতি ফেইবুকে সুবিধাটি যুক্ত করা হয়েছে।
প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ফেইসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গ অনেকদিন ধরেই ফেইসবুককে সংবাদপত্রের বিকল্প হিসেবে ব্যবহারের কথা বলে আসছেন।

অনেকেরই নিউজ ফিডে জমে থাকা একের অধিক খবর পড়ার সময় থাকে না। সে জন্যই এ ব্যবস্থা সংযোজন করেছে ফেইসবুক।

২০১২ সালে আইফোন এবং আইপ্যাডে এই ধরনের ফেইসবুক অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের কথা ভাবা হয়েছিল। এখন ব্যবহারকারী ওয়েব লিংক আলাদা একটি লিস্টে সেইভ করে রাখতে পারবেন। মাইটেকস্কুল নামের ব্লগের মতো এখানেও একটি নতুন বুকমার্ক আইকন রাখা হবে।

নতুন ব্যবস্থায় ব্যবহারকারী খবর সংগ্রহের পাশাপাশি একে সোশাল ‘টু ডু লিস্ট’ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়া পরে অফলাইনে থাকলেও যে কেউ নিজের লিস্টে সংগৃহীত খবর বা তথ্য পড়তে পারবেন।

শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৩

জিমেইলের অজানা ৯ ফিচার

প্রযুক্তি নিয়ে ওয়েবসাইটে যারা রোজ ঘাঁটাঘাঁটি করেন, তাদের সবার অন্তত একটি করে ইমেইল অ্যাকাউন্ট আছে। জিমেইল ইন্টারনেট জায়ান্ট গুগলের বিনামূল্যের ইমেইল সেবা। জিমেইলে রয়েছে প্রয়োজনীয় বেশকিছু ফিচার। রোজ ইমেইল ব্যবহার করলেও এর কিছু ফিচার অনেকের কাছেই অজানা। সে ফিচারগুলো নিয়েই এবারের প্রতিবেদন।
১. অ্যাটাচ করতে ভুলে গেলে
জিমেইলের স্ট্যান্ডার্ড ভার্সনে কাউকে মেইল করার সময় “I have attached” বা এ রকম কোনো শব্দ ব্যবহার করার পর যদি অ্যাটাচ করতে ভুলে যান, তবে সেন্ড বাটনে ক্লিক করলেও আপনার মেইলটি যাবে না। এর বদলে দেখাবে একটি মেসেজ। যার অর্থ দাঁড়ায়– আপনি মেইলে লিখেছেন অ্যাটাচমেন্ট করেছেন, কিন্তু মেইলে কোনো অ্যাটাচমেন্ট নেই। আপনি কি এরপরও মেইলটি পাঠাতে চান? এতে জিমেইলে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অ্যাটাচ করতে ভুলের প্রবণতা কমে আসবে।
২. রঙিন স্টার
গুরুত্বপূর্ণ ইমেইল আলাদা করতে জিমেইলে রয়েছে স্টার চিহ্ন ব্যবহারের সুযোগ জিমেইলের ইনবক্সের হোমপেইজে প্রতিটি ইমেইলের পাশে একটি করে অনুজ্জ্বল স্টার চিহ্ন দেখা যায় আপনি যদি কোনো মেইলকে গুরুত্বপূর্ণের তালিকায় রাখতে চান তবে সেই স্টারে ক্লিক করুন সাদা রংয়ের স্টার তখন হলুদ রং ধারণ করবে
আপনি চাইলে হলুদ রংয়ের পরিবর্তে বিভিন্ন রংয়ের স্টার ব্যবহার করতে পারেন এ জন্য প্রোফাইল ছবির নিচে থাকা সেটিংস কমান্ড থেকে ইন ইউজ এবং নট ইন ইউজ থেকে রং বাছাই করতে পারবেন এখান থেকে একটি, দুটি বা চারটি বিভিন্ন রংয়ের স্টার ব্যবহার করতে পারেন প্রয়োজন অনুযায়ী মেইলগুলো আলাদা রংয়ের স্টার ব্যবহার করে রাখতে পারেন সেটিংসে রং নির্বাচন করার পরে সেভ দ্য পেইজে ক্লিক করুন এর পর প্রথমবার স্টারে ক্লিক করলে হলুদ দেখা দ্বিতীয়বার ক্লিক করলে রং পরিবর্তন হতে থাকবে।
৩. ছদ্মনামে একাধিক ইমেইল
আপনি যদি ইমেইল অ্যাড্রেসে একাধিক ছদ্মনাম ব্যবহার করতে চান, তবে ঠিকানার মাঝখানে একটা ডট বসিয়ে দিন। এরপরও আপনার মেইল আসবে যদি আরও ছদ্মনাম ব্যবহার করতে চান, তবে প্রথম অক্ষরের পর একটি ডট দিয়ে বাকিটুকু আগের মতো বসিয়ে দিন
এটা হতে পারে এমন–
samjones@gmail.com  >  sam.jones@gmail.com  >  s.amjones@gmail.com
আপনি চাইলে বিভিন্ন ওয়েবেসাইটের সেবা গ্রহণ করার সময় বা নিউজলেটার সাবসক্রিপশন করার সময় ছন্দনামে ইমেইল আইডি ব্যবহার করতে পারেন।
৪. করণীয় তালিকা
আপনার টু-ডু লিস্ট বা করণীয় তালিকা যুক্ত করতে পারেন জিমেইলে অফিস কিংবা ব্যবসায়িক প্রয়োজনে এ ফিচারটি ব্যবহার করা সম্ভব
আগামী দিনের সম্ভাব্য কাজের তালিকা ইমেইলে যুক্ত করতে ও সার্কেলের সদস্যদের কাছে পাঠানোর জন্য জিমেইলের হোম পেইজে গুগল লোগোর নিচে জিমেইলে ক্লিক করলে একটি পপআপ স্ক্রিন দেখা যাবে সেখান থেকে টাস্ক নির্বাচন করুন
এবার এতে যুক্ত করুন দিনের বা সপ্তাহের কাজের তালিকা এ তালিকাটি সার্কেলে বা কাউকে মেইল করে পাঠাতে পারেন টাস্ক তৈরি হলে অ্যাকশনস-এ ক্লিক করে তা প্রিন্ট, ইমেইল করতে পারেন এ ছাড়া কাজের তালিকা হালনাগাদ করা ও ফাইলের নাম পরিবর্তনের সুবিধা থাকছে এতে
৫. কিবোর্ড শর্টকাট
জিমেইলে কিবোর্ডের জন্য কিছু প্রয়োজনীয় শর্টকাট কি আছে এতে মাউস ছাড়াই জিমেইল ব্যবহার করা যাবে এ রকম কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কিবোর্ডের শর্টকাট কি হচ্ছে–
মেসেজ পাঠাতে Ctrl + Enter
নতুন উইন্ডো চালু করতে Ctrl +
কাউকে মেইল কার্বন কপি (সিসি) পাঠাতে Ctrl + Shift + c
কাউকে মেইল ব্লাইন্ড কার্বন কপি (বিসিসি) পাঠাতে Ctrl + Shift + b
তবে মনে রাখবেন, কম্পোজে ক্লিক করার পরই কেবল উপরের শর্টকাটগুলো কাজ করবে।
৬. অ্যাডভান্সড শর্টকাট
ইমেইল ব্যবহারকারীদের দরকারি প্রয়োজন মেটাতে রয়েছে অ্যাডভান্সড শর্টকাট মেনু। এটি চালু করতে জিমেইলের ডান পাশে সেটিংসে গিয়ে কিবোর্ড শর্টকাট সক্রিয় করে ‍দিন।
কিবোর্ড শর্টকাট চালুর পর আপনি নিচের সেবাগুলো পাবেন–
নতুন মেসেজ লিখতে কিবোর্ডে c বাটন চাপুন।
নতুন ট্যাবে মেসেজ লিখতে কিবোর্ডে d বাটন চাপুন।
জিমেইলের সার্চ বক্সে কোনো তথ্য খুঁজতে কিবোর্ডে / বাটন চাপুন।
কোনো মেসেজের রিপ্লাই দিতে কিবোর্ডে r বাটন চাপুন।
চ্যাটিয়ের তথ্য মুছে ফেলতে কিবোর্ডে # বাটন চাপুন।
৭. এক ব্রাউজারেই দুটি ভিন্ন ইমেইল
আপনার জিমেইলে ফ্যানের সংখ্যা যদি বেশি হয়, বা দুটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেন, তবে একই ব্রাউজারে আপনি দু্টি ইমেইল চালু করতে পারেন
একসঙ্গে দুটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট সক্রিয় করতে জিমেলের উপরে ডান পাশে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেসে ক্লিক করে Add account নির্বাচন করুন। এতে নতুন একটি ট্যাব ওপেন হবে। এবার এখানে আপনার অন্য জিমেইলে আইডি ও পাসওয়ার্ড বসিয়ে একসঙ্গে দুটি অ্যাকাউন্ট চালু করতে পারেন।
৮. ধীরগতির ইন্টারনেট
ধীরগতির ইন্টারনেট সংযোগ হলে জিমেইল চালু হতে লম্বা সময় লাগতে পারে এ সমস্যা সমাধানে আপনি যদি switch to a basic version নির্বাচন করেন তবে দ্রুত পেইজ আপলোড হবে। সার্চ বক্সে https://mail.google.com/mail/?ui=html লিখে সার্চ করলে বেসিক ভার্সনে জিমেইল দ্রুত চালু হবে।
৯. ব্যাকআপ মেসেজ
জিমেইলে আপনার গুরুত্বপূর্ণ মেসেজগুলো সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন এ জন্য সেটিংস অপশন থেকে Forwarding and POP/IMAP নির্বাচন করুন। এরপর প্রয়োজনমতো আপনার মেইলগুলো ডাউনলোড করে রাখতে পারেন কম্পিউটারে।

ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন 

টেলিটক নিয়ে এলো Flash MiFi Router!

টেলিটক নিয়ে এলো Flash MiFi Router!

এবার Own করো মাত্র ৩৬০০ টাকায় (সাথে ১০ জিবি ফ্রি ডাটা), Share করো সব কিছু!

১ রাউটার দিয়ে চলবে ১০টি ডিভাইস।


টেলিটক থ্রিজি- বাঁধ ভেঙে দা


ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন 

ফেসবুকে আসছে ‘নিউজ ফিড’পড়ার নতুন ফিচার

ব্যবহারকারীদের নিউজ ফিড পড়ার সুবিধার্থে নতুন একটি ফিচার আনতে পারে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ‘সেভ ফর লেটার’ নামের এ ফিচারটি নিউজফিড বুক মার্ক করে রাখার সুবিধা দেবে। ফিচারটি ব্যবহার করে ফেসবুক ব্যবহারের সময় পছন্দসই পোস্ট পরের কোনো সুবিধাজনক সময়ে পড়ার জন্য সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন ব্যবহারকারী। এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে প্রযুক্তি ও ব্যবসাবিষয়ক ওয়েবসাইট অল থিংস ডিজিটাল।

এ ছাড়াও খবর পড়ার বিশেষ সুবিধার একটি ফিচার তৈরি করছে প্রতিষ্ঠানটি যা ব্যবহারকারীকে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর পড়ার ও সংগ্রহ করে রাখার সুবিধা দেবে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সামাজিক যোগাযোগের সাইট হিসেবে ব্যবহারকারীকে বিভিন্ন থার্ড পার্টি প্রকাশকের নিউজফিডগুলো পড়ার সুবিধা দেবে তারা।

এর আগে ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গও একসময় জানিয়েছিলেন, ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত সংবাদপত্রের মতো এক ধরনের সুবিধা গড়ে তুলবে ফেসবুক। কবে নাগাদ এ ফিচার উন্মুক্ত করা হবে সে বিষয়ে ফেসবুকের পক্ষ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

ফেসবুক এ বর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনে ক্লিক করুন 

অনলাইনে পুরোনো গাড়ির বেচাকেনা বাড়ছে

অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে পুরোনো গাড়ির বেচাকেনা বাড়ছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে টয়োটা করোলা গাড়িটি।

অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্রেতাদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে বা মেইলে যোগাযোগ করে গাড়ি বিক্রি করছেন অনেকেই। ক্রেতারাও সহজে অনলাইন থেকে গাড়ির সব তথ্য জেনে নিতে পারছেন। সম্প্রতি অনলাইনে পণ্য বেচাকেনার প্ল্যাটফর্ম বিক্রয় ডটকম কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে।

বিক্রয় ডটকম দাবি করেছে, অক্টোবর মাসে তাদের ওয়েবসাইটে টয়োটা গাড়ির বিজ্ঞাপন পড়েছে সবচেয়ে বেশি। এক মাসে এ সাইটটিতে গড়ে প্রায় তিন হাজার পুরোনো টয়োটা গাড়ি বিক্রির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয় যার মধ্যে ৯৭৯টি ছিল টয়োটা করোলা।

বিক্রয় ডটকমের তথ্য অনুযায়ী, অনলাইন প্ল্যাটফর্ম এখন পুরোনো গাড়ি কেনা-বেচার স্থান হয়ে উঠছে। অনলাইনে সহজে বিজ্ঞাপন দেওয়া ও ক্রেতাদের সহজে তথ্য খুঁজে পাওয়ার সুবিধা থাকায় এ ধরনের প্ল্যাটফর্ম জনপ্রিয় হচ্ছে।



ফেসবুকবর্তমান প্রযুক্তি বিষয় জানতে এখনি লাইক দিন Like

বুধবার, ২৭ নভেম্বর, ২০১৩

আসছে নতুন ডোমেইন

ল্যাপটপ ক্রয়ে ঋণ দেবে এনজিওগুলো

সরকারের ‘শেখার মাধ্যমে আয়’ (লার্ণিং অ্যান্ড আর্ণিং) কর্মসূচীকে এগিয়ে নেয়ার জন্য পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) দেশের বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) মাধ্যমে প্রত্যেক ফ্রিল্যান্সিং আউটসোর্সিং প্রশিক্ষণার্থীকে ল্যাপটপ ক্রয়ে ঋণ সহায়তা দেবে।
আজ বুধবার (২৭ নভেম্বর ২০১৩) পিকেএসএফ মিলনায়তনে লার্ণিং এন্ড আর্র্ণিং বিষয়ক এক কর্মশালায় সংস্থাটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মোঃ আবদুল করিম এ কথা জানান।
এ বিষয়ে দ্রত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তথ্য ও যোযোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় থেকে দু’জন এবং পিকেএসএফ থেকে দু’জনকে ফোকাল পয়েন্ট হিসেবে মনোনীত করা হয়।
কর্মশালয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম খান লার্ণিং অ্যান্ড আর্নিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে দেশে ফ্রিল্যান্সসার থেকে উদ্যোক্তা এবং উদ্যোক্তা থেকে বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং বা আইটি ই-াস্ট্রিয়ালিস্ট তৈরির কর্মপরিকল্পনা নিয়ে একটি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন।
তিনি বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের লার্ণিং অ্যান্ড আর্নিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে নয় মাসে ১৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরি হয়েছে। যারা আউটসোর্সিয়ের কাজ করে বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয় অনলাইন বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় করেছেন। এ দুটি অনলাইন মার্কেট প্লেসে দেশের ফ্রিল্যান্সারদের অবদানের কথা উল্লেখ করে আইসিটি সচিব বলেন, ওডেস্কে পাকিস্তান, রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউক্রেনকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সারদের কাজের প্রবৃদ্ধি বিগত নয় মাসে বৃদ্ধি পেয়েছে ১০২ শতাংশ। ফ্রিল্যান্সিং আউট সোর্সিং খাত থেকে বাংলাদেশের আয় এ বছর ৪০ মিলিয়ন মার্কিং ডলার ছড়িয়ে যেতে পারে বলে তিনি জানান।
এন আই খান জানান আগামী বছর লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রোগ্রামের মাধ্যমে ৪৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরি করা হবে। সরকারের লক্ষ্য প্রথমে ফ্রিল্যান্সার তৈরি করা। পরবর্তীতে এসব ফ্রিল্যান্সার মধ্য থেকে উদ্যোক্তা এবং শেষে এসব উদ্যোক্তাদের মধ্যে থেকে বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) বা আইটি ই-াস্ট্রিয়ালিস্ট তৈরি করা হবে।
এন আই খান বলেন, ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র (ইউআইএসসি) থেকে বর্তমানে প্রতি বছর প্রায় ৫০ হাজার তরুণ-তরুণী কম্পিউটার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের লিভারেজিং আইসিটি প্রকল্প থেকে ৩৪ হাজার আইটি পেশাজীবি তৈরি হচ্ছে। এছাড়াও স্কুল, কলেজ, পলিটেকনিক ও ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট এবং স্ব-উদ্যোগে প্রচুর সংখ্যক কম্পিউটার প্রশিক্ষিত মানুষদের টার্গেট করে লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রোগ্রামকে উপজেলা পর্যন্ত সম্প্রসারিত করা হবে। এ ব্যাপারে বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) সহযোগিতা কামনা করেন। পিকেএসএফ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ‘শেখার মাধ্যমে আয়’ এর মতো উদ্ভাবনী কর্মসূচীর প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশের মানুষ অত্যন্ত মেধাবী তাদের আয়ের পথ দেখিয়ে দেয়া হলে তারা নিজেরাই আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে নিজেদেরকে স্বাবলম্বী করে তুলবে।
তিনি বলেন, এ কর্মসূচী তৃণমুল পর্যায়ে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য এনজিওদের সম্পৃক্ততার প্রয়োজন রয়েছে। খুব শ্রীঘই আইসিটি মন্ত্রণালয়, পিকেএসএফ এর এনজিও কর্মকর্তাদের নিয়ে বড় আকারে একটি কর্মশালার উদ্যোগ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।
কর্মশালায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মোবাইল অ্যাপস কর্মসূচীর পরিচালক ড. মোহাম্মদ আবুল হাসান, লিভারেজিং আইসিটি প্রকল্পের কম্পিউনিকেশন কনসালট্যান্ট অর্জিত কুমার সরকার ও টেকনিক্যাল স্পোশালিস্ট খালিদ নোমান হুসাইনী এবং পিকেএসএফ, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ ফজলুল কাদেরসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এখন স্মার্টফোনের পাসওয়ার্ড আপনার চোখ!

অ্যাপল সম্প্রতি তাদের আইফোন ৫এস এর জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট সুবিধা যুক্ত করেছে। এর মাধ্যমে অনেকটা কার নিরাপত্তা কত বেশী শক্তিশালী সেটার একটা প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে গেছে অজান্তেই। স্যামসাং ঘোষণা দিয়েছে তারা বাজারে আরও উন্নত নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্বলিত স্মার্টফোন আনতে যাচ্ছে যেটা আপনার চোখকে পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করবে।
ইতিমধ্যেই বিভিন্ন প্রযুক্তিতে চোখকে পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। স্যামসাং এই পদ্ধতি স্মার্টফোনেও সংযুক্ত করতে যাচ্ছে, যাকে বলা হচ্ছে EyeVerify. এটি একটি আইরিশ কোম্পানী যেটি স্যামসাং এর সাথে যুক্ত হয়ে কাজ করে যাচ্ছে।
এটি চোখের রক্ত ধমনীর ওপর নির্ভর করে পাসওয়ার্ড নির্ধারণ করবে। প্রত্যেকটা মানুষের রক্ত ধমনীর প্যাটার্ণ আলাদা যেটা মানুষের মৌলিকত্ব নির্ধারণ করে। রক্ত ধমনী যেহেতু আমাদের সাদা চোখে খুব স্পষ্ট দেখা যায়, সুতরাং অন্ধকারেও স্মার্টফোন তার মালিককে চিনে নিতে পারবে!
EyeVerif কোম্পানীর বিশ্বাস এটি খুবই ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে ভবিষ্যতে মানুষের নিরাপত্তার জন্য। এই সফটওয়্যারটি বর্তমানে Fixmo এবং AirWatch দুটি ডিভাইসের উপযোগী করে বিক্রি করছে EyeVerify কোম্পানী। এছাড়া তারা সরকার এবং সেনাবাহিনী সদস্যদের জন্য কিছু সফটওয়্যার বানিয়েছে যাচাই করার জন্য।
ইতি মধ্যে EyeVerify কোম্পানী সাধারণ অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য একটি ডেমো ভার্সনও ছেড়েছে, যেটি ফ্রি ডাউনলোড করতে পারবেন গুগল প্লে ষ্টোর থেকে।

এশিয়া থাকবে ফোরজিতে সেরা!

আগামী চার বছরের মধ্যেই ফোরজি নেটওয়ার্ক ব্যবহারের দিক থেকে বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চল থেকে এগিয়ে যাবে এশিয়া। ভারত ও চীনে চতুর্থ প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক বা লং টার্ম ইভোলিউশন (এলটিই) উন্মুক্ত হওয়ায় ২০১৭ সাল নাগাদ ৪৭ শতাংশ ফোরজি সংযোগ আসবে এশিয়া থেকে। আন্তর্জাতিক টেলিকম সংস্থা জিএসএম অ্যাসোসিয়েশন সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে।
জিএসএমএর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এলটিই সংযোগের প্রায় অর্ধেকই হবে এশিয়াভিত্তিক আর এসময় নাগাদ বিশ্বে ফোরজি নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীর সংখ্যাও একশো কোটি ছাড়িয়ে যাবে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া।
জিএসএমএর পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০১৭ সাল নাগাদ বিশ্বে মোবাইল সংযোগ দাঁড়াবে প্রায় আটশো কোটি। এ সময়ের মধ্যে প্রতিটি আটটি সংযোগের অন্তত একটি হবে ফোরজি সংযোগ। ২০১৩ সালের শেষ নাগাদ ফোরজি সংযোগ দাঁড়াবে সাড়ে ১৭ কোটির ওপরে।
জিএসএমএর সাম্প্রতিক এক গবেষণার তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ২০ শতাংশ জনসংখ্যা ফোরজি বা এলটিই নেটওয়ার্কের আওতায় চলে এসেছে। মোবাইল অপারেটররা আগামী কয়েক বছর ধরেই তাদের নেটওয়ার্ক সুবিধা বাড়াতে কাজ করবে যার ফলে ২০১৭ সাল নাগাদ বিশ্বের প্রায় অর্ধেক জনসংখ্যা ফোরজি নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ৯০ শতাংশ, ইউরোপে ৪৭ শতাংশ ও এশিয়ায় ১০ শতাংশ জনসংখ্যা এলটিইর আওতায় রয়েছে।
জিএসএমএর প্রধান পরিকল্পনা কর্মকর্তা হুনমি ইয়াং জানিয়েছেন, এলটিইর প্রসারণে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখবে উপযুক্ত সময়ে মোবাইল অপারেটরদের কাছে ফোরজি তরঙ্গের বরাদ্দ, ফোরজি সমর্থনযোগ্য সাশ্রয়ী দামের স্মার্টফোন, কম দামে ফোরজি নেটওয়ার্কে ডাটা ব্যবহারের সুযোগ।
ইয়াংয়ের মতে, উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশে এলটিই চালু করতে পারলে মোবাইল অপারেটরদের ব্যবসা আরও বাড়বে। বিশেষ করে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে এলটিই নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে গড়ে প্রায় সাত থেকে ২০ গুণ আয় করা সম্ভব। তবে এ জন্য ফোরজি সুবিধার সাশ্রয়ী স্মার্টফোন তৈরির দিকে যেতে হবে নির্মাতাদের।

ট্যাব-ল্যাপটপের কাছে ‘মৌন’ যৌনজীবন

আপনার বেডরুমের দরজা কি ল্যাপটপ, ট্যাবলেটের জন্য খোলা? রাতে বিছানায় শুয়ে-বসে ফেসবুক, টুইটারের জগতে আপনার আনাগোনা কি দিনে দিনে বাড়ছে? যদি দু’টি প্রশ্নের উত্তরই ‘হ্যাঁ’ হয়, তা হলে ‘টেক-স্যাভি’ বলে নিজের কাঁধ নিজে চাপড়ানোর আগে দু’বার ভাবুন৷ প্রযুক্তির তালে তাল মেলাতে গিয়ে জীবনের স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন না তো? সাবধান!
বিলেতের ১৫,০০০ মানুষের ওপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, প্রযুক্তির কোপে তাদের যৌনজীবনে ছন্দপতন ঘটছে৷ দু’টি সংস্থার করা এই সমীক্ষার রিপোর্ট দেখে ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের অধ্যাপক ক্যাথ মার্সার বলেছেন, ‘বর্তমান প্রতিযোগিতার বাজারে সাধারণ মানুষ এমনিতেই মানসিক চাপে থাকেন৷ চাকরি, রোজগার– চিন্তার শেষ নেই৷ মন সায় না-দিলে শরীর কাজ করবে কী ভাবে?’ কিন্ত্ত পরিস্থিতি যে আরও ঘোরালো করে তুলেছে মানুষই! সমীক্ষাটি সামনে রেখে মার্সারের তাত্পর্যপূর্ণ মন্তব্য, ‘আধুনিক প্রযুক্তিকে আমরাই টেনে বিছানায় আনছি৷ ল্যাপটপ, ট্যাবলেট খুললেই ফেসবুক, টুইটারের জগত৷ মানসিক চাপ কাটাতে যৌনসঙ্গীর কোনও বিকল্প নেই৷ দুর্ভাগ্যজনক ভাবে আমরা প্রযুক্তির কাছে আত্মসমর্পণ করছি৷’
বিছানায় প্রযুক্তির অনুপ্রবেশের ফল কী? দেখা যাচ্ছে, প্রায় এক দশক আগেও যেখানে গড় ব্রিটেনবাসী মাসে অন্তত ছ’বার যৌনসংসর্গ করতেন, এখন গড়ে পাঁচবারও শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের রাস্তায় হাঁটেন না৷ ২০১০ থেকে ২০১২-র মধ্যে চালানো সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, পুরুষদের ক্ষেত্রে এই গড় ৪.৯, মহিলাদের ক্ষেত্রে ৪.৮৷ অথচ আগের সমীক্ষাগুলিতে উভয় ক্ষেত্রেই গড় ছিল ৬-এর উপর৷ দুশ্চিন্তার শেষ এখানেই নয়৷ কেননা, প্রযুক্তি নির্ভরতার এই প্রবণতায় ছড়াচ্ছে সামাজিক ব্যাধিও৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ১৬ থেকে ৪৪ বছরের যুগলরা অনলাইন পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত হয়ে পড়ছেন৷ নীলছবিই তাদের কাছে যৌনমিলনের বিকল্প৷ মার্সার বলছেন, ‘এ-ও বেডরুমে প্রযুক্তির অবাধ প্রবেশের ফল৷’
স্বাভাবিক ভাবে প্রশ্ন উঠেছে, তা হলে কি যৌনসম্পর্কে মানুষের আগ্রহ কমছে? উত্তর, হ্যাঁ৷ মহিলা-পুরুষ নির্বিশেষে সমীক্ষায় অনেকে স্বীকার করেছেন, শারীরিক সম্পর্কের আকর্ষণ ক্রমেই তাদের কাছে ফিকে হচ্ছে৷ যদিও যাদের উপর সমীক্ষা চালানো হয়েছে, তাদের অতীত কিন্ত্ত বেশ ‘রঙিন’ই ছিল৷ দেখা গিয়েছে, ৪৪ বছরের নীচে মহিলারা গড়ে ৭.৭ জনের সঙ্গে যৌনসম্পর্ক স্থাপন করেছেন৷ আর একই বয়সের পুরুষরা? তাদের ক্ষেত্রে গড় ১১.৭! অথচ সমীক্ষাতেই দেখা গিয়েছে, প্রতারক সঙ্গীকে সহ্য করতে পারেন না অধিকাংশ মানুষ৷ তবে সমলিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ নিয়ে তেমন আপত্তি নেই৷ বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে সমলিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ বেড়েছে৷ ১৯৯০ সালে যেখানে ১.৮ শতাংশ মহিলা সমলিঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতেন, সর্বশেষ সমীক্ষায় সেটাই দাঁড়িয়েছে প্রায় ৮ শতাংশে৷ পুরুষদের ক্ষেত্রে এই হার কমবেশি সাড়ে তিন শতাংশেই দাঁড়িয়ে৷
প্রযুক্তির ইতিবাচক দিক হলো, বর্তমান জীবনধারায় কেউই আর ‘একা’ নন৷ ফেসবুক, টুইটারের মতো সঙ্গী আছে যে! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যৌনজীবনের ক্ষেত্রে এই ইতিবাচক দিকই খলনায়ক৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, অনেকেই ‘একা’ থাকতে পছন্দ করেন৷ তার মানে এই নয় যে, যৌনতার প্রতি তাদের কোনো আকর্ষণ নেই৷ কেননা, ইন্টারনেটের মাধ্যমে যৌনতার স্বাদ তাদের অনেকেই নেন৷ কিন্ত্ত যৌনসঙ্গীতে তীব্র আপত্তি৷ এর ফলে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের সুযোগও কমছে৷ কমছে সংসার পাতার প্রবণতাও৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, সন্তানধারণের ক্ষেত্রে কিন্ত্ত রীতিমতো হিসেব কষেই সকলে এগোচ্ছেন৷ ছ’টির মধ্যে প্রতি পাঁচটি ক্ষেত্রেই পরিকল্পিত ভাবে গর্ভধারণ হয়েছে৷
সমীক্ষাটি ব্রিটেনে চালানো হলেও, বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অন্যান্য উন্নত বা উন্নয়নশীল দেশে ফলাফলে খুব বেশি হেরফের হওয়ার সম্ভাবনা কম৷ কেননা, উন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশে প্রযুক্তির অগ্রগতি কমবেশি একই৷ আর্থ-সামাজিক মাপকাঠিতেও বিশাল ফারাক নেই৷

মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৩

Graphic-Designer 2
বতর্মান সময়ে মার্কেটপ্লেজে সব থেকে জনপ্রিয় কাজ হল গ্রাফিক্স ডিজাইন।মার্কেটপ্লেজে এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলছে। তবে  নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্স গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে সাফল্য পাওয়া অনেক কষ্টকর। এ কারনে নতুন যারা ফ্রিল্যান্সিং করতে আগ্রহী বা গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে চান তাদের জন্য এমন কিছু টিপস চলুন টিপসগুলো দেখে নেওয়া যাক:

ক্লায়েন্টের সাথে সম্পর্ক:

good-client1
ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন অংশই হচ্ছে ক্লায়েন্ট বা বায়ার। এ কারনেই ক্লায়েন্টদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে।
  • আপনার কাজের মানের তুলনায় কখনই ক্লায়েন্টদের কাছ থেকে কম মূল্য চাইবেন না।
  • যদি ক্লায়েন্ট কোনো কারনে আপনার ওপর রেগে যায় তাহরে সাথে সাথে রিপ্লাই না দিয়ে সময় নিন। ক্লায়েন্টকে ঠান্ডা হওয়ার সময় দিন।
  • ক্লায়েন্ট সবসময় সঠিক কথা না-ও বলতে পারে। সেক্ষত্রে ভদ্রভাবে না বলুন।
  • কাজ শুরু করার আগে ক্লায়েন্টের কাছ থেকে কিছু টাকা আপফ্রন্ট রাখুন।
  • সবসময় প্রফেশনাল থাকুন।

ডিজাইনিং এর সময়:

Graphic-Designer 2
বিভিন্ন ডিজাইনারদের কাজ করার পদ্ধতি বিভিন্ন। কেউ সরাসরি কম্পিউটারে বসেই ডিজাইনিং শুরু করেন, কেউ আবার প্রথমে কাগজে পেন্সিল দিয়ে ডিজাইন করে নেন। আপনি যেভাবেই ডিজাইন করতে চান সেই পদ্ধতিতেই চলতে পারেন। এখানে আমার কিছু টিপস হলো:
  • কম্পিউটারে ডিজাইন করার আগে কাগজে স্কেচিং করে আপনার আইডিয়া ফুটিয়ে তুলুন।
  • ক্লায়েন্টের টার্গেট অডিয়েন্স সম্পর্কে রিসার্চ করে তারপর ডিজাইনিং শুরু করুন।
  • ডিজাইন করার সময় আপনি হিসেবে নয় ব্যাবহারকারী হিসেবে ডিজাইনটিকে পর্যবেক্ষন করুন।
  • বিভিন্ন সোর্সের ডিজাইন দেখে নিজেকে অনুপ্রানিত করুন।

সময় ও কাজ ব্যাবস্থাপনা:

Time-Management 3
সময় ও কাজ ব্যাবস্থাপনা ফ্রিল্যান্সিং এর ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বূর্ন বিষয়। মনে রাখবেন এক সময় আসবে যখন আপনি অনেক জায়গা থেকেই কাজের অফার পাবেন। সেই মুহুর্তে আপনার সময় ও কাজের মধ্যে সমন্ময় সাধন করা অনেক জরুরী অন্যথায় আপনার কাজ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এক্ষত্রে কিছু টিপস হলো:
  • আপনার কাজের জন্য একটি লিস্ট তৈরি করুন ও সেই অনুযায়ী কাজ করুন।
  • গুরুত্বপূর্ন কাজগুলো আগে করার চেষ্টা করুন।
  • কাজের সুবিধার জন্য কোনো প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট এপ্লিকেশন ব্যাবহার করতে পারেন।
  • যখন অনেক ব্যাস্ত থাকবেন তখন আপনার কাজগুলো অন্য ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে করিয়ে নিতে পারেন।

মার্কেটিং:

4
অনেক ফ্রিল্যান্স ডিজাইনারই মনে করেন যে তাদের মার্কেটিং এর কোনো প্রয়োজন নেই। কিন্তু ভালো ক্লায়েন্ট পেতে হলে মার্কেটিং এর বিকল্প নেই। নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য নিচে কিছু মার্কেটিং টিপস্ দেওয়া হলো:
  • সোসাল মিডিয়াকে আপনার মার্কেটিং এর বড় হাতিয়ার হিসেবে ব্যাবহার করতে পারেন।
  • আপনার কভার লেটার আরও আকর্ষনীয় করার চেষ্টা করুন।
  • লোকাল মার্কেটে ও সারা বিশ্বে আপনার মার্কেটিং করুন।
  • নিজের বিজনেস কার্ড তৈরি করুন এবং যখনই পারেন তা অন্যকে দেওয়ার চেষ্টা করুন।
  • কোনো ইন্টারনেট ফোরামে আপনার কাজের এডভার্টাইজ করবেন না।

আরও কিছু টিপস:

আরও কিছু টিপস রয়েছে যা আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ন। টিপসগুলো হলো:
  • একটি আকর্ষনিয় পোর্টফোলিও তৈরি করুন।
  • একটি ই-মেইল সফটওয়্যার ব্যাবহার করুন।
  • আপনার ভুলগুলো থেকে শিক্ষা নিন ও সামনে এগিয়ে যান।
  • যত কাজের অফার পাবেন সবগুলোই একসেপ্ট করবেন না। যাচাই বাছাই করে কাজ নিন।
  • কাজের ফাঁকে ফাঁকে বিরতিরও প্রয়োজন রয়েছে তাই মাঝে মাঝে নিজেকে বিশ্রাম দিন। কোথাও ঘুরতে যেতে পারেন।
  • নিয়মিত শারিরিক ব্যায়াম করুন।
লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন!

ইন্টারনেটে গ্রহণ করা যাবে খাবারের স্বাদ

কোন দোকানের খাবার কেমন সুস্বাদু সেটা জানার জন্য কষ্ট করে সেই দোকানে যাওয়ার দিন ফুরাচ্ছে অচিরেই। কারণ বিজ্ঞানীরা এমন একটি গেজেট আবিষ্কার করেছেন যার মাধ্যমে এখন ইন্টারনেটের মাধ্যমেই গ্রহণ করা যাবে বিভিন্ন খাবারের স্বাদ।
সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীগণের আবিষ্কৃত এই বিশেষ গেজেটটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ডিজিটাল টেস্ট ইন্টারফেস’।
জানা যায়, এই গেজেটের মাধ্যমে কেউ কোনো খাবারের স্বাদ গ্রহণ করতে চাইলে প্রথমে ইন্টারনেটে সার্চ দিয়ে সেটির ছবি কম্পিউটারের মনিটরে হাজির করতে হবে। তারপর একটি বিশেষ প্যাডের মধ্যে জিহ্বা লাগিয়ে ওই খাবারের ইলেক্ট্রোকোড চাপতে হবে। আর তারপরেই সেটি জিহ্বায় বিশেষ মাত্রায় বিদ্যুৎ করবে, যা আপনাকে বিভিন্ন খাবারের স্বাদ দেবে।
আবিষ্কারক দলের প্রধান ড. নিমিসা রানাসিংহে জানান, এই গেজেটটির মাধ্যমে ইচ্ছে করলে কম্পিউটার গেমও খেলা যাবে। এছাড়া চাইলে ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন খাবার অন্যের সঙ্গে শেয়ারও করতে পারবে।
বর্তমানে এই বিজ্ঞানীগণ কাজ করছেন ‘ডিজিটাল ললিপপ’ বানানোর প্রজেক্ট নিয়ে। যার মাধ্যমে ডায়াবেটিস আছে এমন ব্যক্তিগণও ভার্চুয়ালি মিষ্টির স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন।
ড. নিমিসা রানাসিংহে বলেন, ‘আমরা বিদ্যুৎ, ফ্রিকোয়েন্সি এবং তাপকে নিপুনভাবে ব্যবহার করে কোনো কিছুকে লবণাক্ত, টক, মিষ্টি কিংবা তিতকুটেও করতে সক্ষম।
তবে এই বিজ্ঞানীগণ বলছেন, সব ধরনের স্বাদ ভার্চুয়ালি তৈরি করতে পারলেও কেবল একটি রয়ে গেছে এখনো অধরা। যেমন সুগন্ধি মশলা দিয়ে মাশরুম, বাঁধাকপি কিংবা টমেটো রান্না।

রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৩

ওয়েব ডেভেলপমেন্টে স্মার্ট ক্যারিয়ার গড়ুন!

বর্তমান সময়ে আমাদের দেশে তরুণদের কাছে অন্যতম আলোচিত বিষয়ের একটি হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। বাংলাদেশে এখনও এ বিষয়টি অনেকের কাছেই নতুন, কিন্তু এরই মধ্যে অনেকে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্যকে সম্পূর্ণরূপে পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়েছেন। এই বছর ওডেস্ক থেকে বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররা আয় করেছেন ১২ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি আর নভেম্বর মাসেই সফটওয়্যার, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং আইটি বিভাগে ১ হাজার ৮০০ বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররা ৫৭ হাজার ঘন্টা কাজ করেছেন! তাছাড়া, বর্তমানে বাংলাদেশে ইল্যান্সেই নিবন্ধিত রয়েছে প্রায় ৩৩ হাজার ফ্রিল্যান্সার।
২০১২ তে ইল্যান্স.কম-এ প্রায় ১১ হাজার কাজে বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররা নিয়োগ পেয়েছেন, যা তার আগের বছরের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি। এ পর্যন্ত ইল্যান্স থেকে বাংলাদেশে আয় ৫.৬ মিলিয়ন ডলার (গত ৭ মাসেই এসেছে প্রায় ১.৫ মিলিয়ন)। এটি সত্যিই আশাব্যঞ্জক আর বিশাল এ সংখ্যার জন্য ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোতেও বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সারদের বেশ ইতিবাচকভাবে মূল্যায়ন করা হচ্ছে। ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার হিসেবে সময়ের জনপ্রিয় একটি পেশা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। লোকাল মার্কেটের পাশাপাশি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের প্রচুর কাজ রয়েছে। ওয়েব দুনিয়ায় বর্তমানে মোট ওয়েবসাইটের পরিমান প্রায় ৬৫০ মিলিয়ন। এই তালিকায় প্রতিদিনই যুক্ত হচ্ছে হাজার হাজার ওয়েবসাইট। এই বিপুল সংখ্যক ওয়েবসাইটকে তৈরি করার জন্য ডিজাইনের পাশাপাশি প্রয়োজন হয়েছে ওয়েব ডেভেলপমেন্টের। নতুন ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট কিংবা পুরাতন ওয়েবসাইটকে নতুনভাবে ফাংশনালিটি যোগ করার জন্য প্রয়োজন একজন ভালমানের ওয়েব ডেভেলপার। তাই দিন দিন ওয়েব ডেভেলপারের চাহিদা বেড়েই চলেছে। একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে অবশ্যই এইচটিএমএল, সিএসএস, পিএইচপি, জাভাস্কিপ্ট, জেকোয়ারি, মাইএসকিউএলসহ সংশ্লিষ্ঠ আরো বিষয় ভালভাবে জানতে হবে।
বিলিয়ন ডলারের ওয়েব ডেভেলপমেন্টের বাজারে বাংলাদেশি ওয়েব ডেভেলপারদের সংখ্যা তুলনামূলক অনেক কম। নিজে নিজে প্রোগ্রামিং শেখাটা একটি সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। একটি প্রোগ্রামিং ভাষা শেখা থেকে শুরু করে তাতে পরিপূর্ণ দক্ষ হতে বছরখানেক সময় লেগে যেতে পারে। সঠিক গাইডলাইন ও মানসম্মত প্রশিক্ষণের অভাবে ইচ্ছা থাকলেও অনেকে ওয়েব ডেভেলপমেন্টে যুক্ত হতে পারছেন না। অদক্ষদের পরিচালনায় অনেকে আবার ভুল পথে এগিয়ে গিয়ে ঠকছেন।
তাই যারা ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে সময়ের স্মার্ট পেশা নিতে চান তাদের জন্য ৪ মাসব্যাপি প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপমেন্ট প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে ডেভসটিম ইনস্টিটিউট। ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও ক্লাস কিংবা অফিসের চাপে শুরু করতে পারছিলেন না তাদের কথা মাথায় রেখেই প্রতি শুক্র এবং শনিবার ৪ মাসব্যাপী প্রশিক্ষণটির আয়োজন করা হয়েছে।
চার মাসব্যাপী এই প্রশিক্ষণে এইচটিএমএল, সিএসএস, পিএসডি টু এইচটিএমএল কনভার্ট, জাভাস্ক্রিপ্ট, জেকোয়ারি, পিএইচপি বেসিক, মাইএসকিউএল বেসিক, সিএমএস বিল্ডিংসহ ওয়েব ডেভেলপমেন্টের সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো হাতে-কলমে শেখানো হবে।
এছাড়া বাংলাদেশে অনলাইন মার্কেটপ্লেস ইল্যান্সের প্রতিনিধিদের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কিভাবে কাজ করবেন সেটিও দেখানো হবে হাতে কলমে।
ক্লাস শুরু হবে ২৯ নভেম্বর, ২০১৩ থেকে, ক্লাস চলবে সপ্তাহে দুদিন, প্রতি শুক্রবার এবং শনিবার সকাল ১০:৩০ থেকে ১ টা পর্যন্ত ।
প্রশিক্ষণ ফি: ২০,০০০ টাকা।
আমাদের আসন সংখ্যা সীমিত, তাই আজই আপনার ভর্তি নিশ্চিত করুন।
বিস্তারিত দেখতে পারেন আমাদের ফেইসবুক ইভেন্ট থেকে: http://on.fb.me/1dU1F0k
এছাড়া অনলাইনে নিবন্ধণ করতে: http://bit.ly/1ax5Fit
ফ্রিল্যান্সিং সংক্রান্ত কোন তথ্যের প্রয়োজনে আমাদের ফোন করতে পারেন, প্রফেশনাল পরামর্শকের সঙ্গে আলাপ করার জন্য ভিজিট করতে পারেন আমাদের অফিসেও!
আমরা আছি আপনারই অপেক্ষায়।
হ্যালো: ০১৭১১-২৬৭৯১১, ০২৯৬৬২৬৪৪

আনলকড আইফোন এখন বাজারে!

এখন থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের কেউ চাইলেই কিনতে পারবে টেক জায়ান্ট অ্যাপলের আনলকড আইফোন ৫এস স্মার্টফোন।
  প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশএবলে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, শুক্রবার থেকে অ্যাপল কোম্পানির অনলাইন স্টোরে আনলকড জিএসএম ভার্সনের মোবাইল ফোনের অর্ডার নেওয়া শুরু করেছে।
আনলকড মডেলের আইফোনের ফিচার আগের মতোই থাকবে। তবে এতে কোনো সিম কার্ড থাকছে না। ফোনগুলো এটিঅ্যান্ডটি এবং টি-মোবাইলের মতো প্রতিষ্ঠানের সিম সংযোজন করে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহার করা যাবে।
তিনটি ভিন্ন মডেলে আনলকড ফোন পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল। এগুলো হল ১৬, ৩২ এবং ৬৪ জিবি মডেল। আর এ সুবিধাটি তিন মডেলে ব্যবহার করতে যথাক্রমে খরচ পড়বে ৬৪৯, ৭৪৯ এবং ৮৪৯ মার্কিন ডলার।
সিমবিহীন আইফোন ৫সি-এর একটি সংস্করণ সেপ্টেম্বরেই বাজারে এসেছে। প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রে আনলকড আইফোন ৫এস সংস্করণটি পাওয়া যাচ্ছে।
আনলকড হ্যান্ডসেট মডেলটি বাণিজ্যকরণের জন্য এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যেই অনলাইনে পাওয়া আর আগামী সপ্তাহেই অ্যাপলের সব রিটেইল স্টোর থেকেই এটি সংগ্রহ করা যাবে বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল।

শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৩

নকিয়াকে বিক্রির সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত, কিনছে মাইক্রোসফট

জনপ্রিয় মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নকিয়াকে বিক্রির সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত হয়েছে, কিনছে সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট। গত সেপ্টেম্বরে নকিয়াকে কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করে মাইক্রোসফট। এরই ধারাবাহিকতায় ৯৯ দশমিক ৫০ শতাংশ শেয়ারহোল্ডারদের মতামতের ভিত্তিতে বিক্রি হয়ে যাচ্ছে একসময়ের সর্বাধিক জনপ্রিয় এই মোবাইল কোম্পানী।

৭ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে মালিকানা পরিবর্তন হচ্ছে নকিয়ার মোবাইল ব্যবসাটি। যদিও কিছু শেয়ারহোল্ডার বিক্রির বিরোধিতা করে আসছিল প্রথম থেকে, কিন্তু ব্যবসাটিকে টিকিয়ে রাখতে এর বিকল্প পথ ছিল না বলে জানায় বিবিসির খবরে। বেশ কিছু সময় ধরে অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোনের সাথে বাজারে টিকতে পারছিল না নকিয়া, মূলত সামস্যাং এবং অ্যাপলের গ্রাহক চাহিদা কাল হয়ে দাড়ায় ফিনল্যান্ডের এই কোম্পানীটির।

এমন কঠিন সিদ্ধান্তে আসার পর ফিনল্যান্ডবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন নকিয়ার চেয়ারম্যান। রিস্টো সিলাসমা জানান, "এ খবরে ফিনিশদের মন ভেঙে যাবে যারা নকিয়ার এতদিনের সাফল্যকে জাতীয় (ফিনল্যান্ডের) অর্জন হিসাবে গণ্য করত।" লুমিয়া মোবাইলফোন বের করে অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোনের সাথে টিকে থাকার সর্বশেষ চেষ্টা করেছিল নকিয়া।

গুগলের প্রিপেইড ডেবিট কার্ড সেবা

প্রিপেইড ডেবিট কার্ড সেবা ‘ওয়ালেট কার্ড’ চালু করেছে ইন্টারনেট জায়ান্ট গুগল। বুধবার এক ব্লগ পোস্টে এই খবর জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। গুগলের দাবি, তাদের প্রিপেইড ডেবিট কার্ডটি কেনাকাটা বা এটিএম মেশিন থেকে টাকা তোলার মতো দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার করা যাবে।
বার্তাসংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কেবল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ‘গুগল ওয়ালেট’ সার্ভিসের আওতায় এই কার্ড এখন পাওয়া যাচ্ছে। প্রিপেইড ডেবিট কার্ডটি দিয়ে আদতে গুগলের ওয়ালেট অ্যাকাউন্টে জমা থাকা অর্থ খরচ করতে পারবেন গ্রাহক। গুগল ওয়ালেট হচ্ছে গুগলের স্মার্টফোন অ্যাপ এবং অনলাইন পেমেন্ট সার্ভিস, যা গ্রাহকদের কেনাকাটা এবং অর্থ বিনিময়ে সাহায্য করে।
গুগল জানিয়েছে, মাস্টারকার্ড গ্রহণ করে এবং এটিএম কার্ড মেশিন আছে এমন যে কোনো জায়গায় ব্যবহার করা যাবে ওয়ালেট কার্ড। আর এই সেবার জন্য আলাদা কোনো চার্জ কাটা হবে না বলেও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।
নিজের ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে ওয়ালেট অ্যাকাউন্টের সংযোগ করে অথবা অন্য কোনো ওয়ালেট অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফারের মাধ্যমে ওয়ালেট কার্ডে টাকা জমা করতে পারবেন গ্রাহক। বুধবার থেকেই কার্ডটির জন্য অনলাইন অর্ডার নিচ্ছে গুগল। অর্ডার দেওয়ার পর কার্ড গ্রাহকের কাছে পৌঁছাতে ১০ থেকে ১২ দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন গুগল মুখপাত্র।

২২ ঘণ্টা চার্জ তোশিবা ল্যাপটপে

২২ ঘণ্টার ব্যাটারি লাইফের ল্যাপটপ বানিয়েছে জাপানের ইলেকট্রনিক্স পণ্য নির্মাতা তোশিবা। তোশিবা ডায়নাবক্স কিরা: ভি৬৩৪ ল্যাপটপে স্মার্টফোন ধাঁচের ব্যাটারি ব্যবহার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ ছাড়াও এতে আছে ইনটেলের হ্যাশওয়েল প্রসেসর।
প্রযুক্তি সংবাদবিষয়ক সাইট সিনেট জানিয়েছে, ল্যাপটপটিতে ইনটেলের ১.৬ গিগাহার্টজের কোর আইফাইভ হ্যাশওয়েল প্রসেসরসহ আরও আছে ৮জিবি র‌্যাম, ১২জিবি সলিড-স্টেট ড্রাইভ এবং ১৩৬৬ বাই ৭৬৮ পিক্সেলের ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে।
তোশিবার দাবি, একবার চার্জে লম্বা সময় ব্যবহারের জন্য ল্যাপটপটির ব্যাটারি তৈরি করা হয়েছে বাজারের প্রচলিত স্মার্টফোনগুলোর ব্যাটারির সঙ্গে মিল রেখে। অন্যদিকে সিনেট জানিয়েছে, ভি৬৩৪ লম্বা ব্যাটারি লাইফের পেছনে এটির বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হ্যাশওয়েল চিপ এবং তুলনামূলক কম রেজুলিউশনের ডিসপ্লের অবদান রয়েছে।
তবে হাই-রেজুলিউশন ডিসপ্লের ভক্তদের কথাও ভুলে যায়নি তোশিবা। ডায়নাবক্স কিরা সিরিজের দ্বিতীয় মডেল ভি৮৩৪-এ রয়েছে ২৫৬০ বাই ১৪৪০ পিক্সেলের ডিসপ্লে। তোশিবা জানিয়েছে একবারের চার্জে ১৪ ঘণ্টা চলবে ভি৮৩৪।
শুক্রবার জাপানের স্থানীয় বাজার দিয়ে বিক্রি শুরু হবে ভি৬৩৪ এবং ভি৮৩৪ ল্যাপটপ দুটির।

গুগলের তারহীন চার্জার

বিশ্বখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন গুগল এবার তারহীন চার্জার বাজারে নিয়ে এসেছে। ৯ ওয়াট ও ১ দশমিক ৮ অ্যাম্পিয়ার এ/সি চার্জারটিতে যুক্ত করা হয়েছে মাইক্রো ইউএসবি কেব্ল। বিশেষ এ চার্জার বর্তমানে নেক্সাস ৪, ৫ ও ৭ স্মার্টফোনের জন্য বাজারে ছাড়া হয়েছে। শুরুতেই নেক্সাসের এ যন্ত্রগুলোর জন্য তৈরি বিশেষ এ চার্জার যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার ব্যবহারকারীরা পাবেন। চার্জারটি অনলাইনেও কেনা যাবে। তারহীন চার্জারটির সাহায্যে ব্যবহারকারীরা চাইলে কোনো ধরনের প্লাগ স্মার্টফোন কিংবা ট্যাবলেটে না লাগিয়েই নিজের যন্ত্রটি চার্জ করতে পারবেন। আকারে বেশ ছোট চার্জারটির দাম রাখা হয়েছে ৪৯ দশমিক ৯৯ ডলার।

গুগলের এমন বিশেষ চার্জারটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য দারুণ এক সুখবর বলে মনে করছেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। বিশেষ করে প্রখ্যাত সব প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের সেরা সব স্মার্টফোন যখন চার্জ সমস্যায় ভুগছে, তখনই গুগলের এমন পণ্য বাজারে এল। প্রযুক্তি বিশ্লেষকদের ধারণা, এর মাধ্যমে এক ধাপ এগিয়ে গেল গুগল। শুরুতেই নিজেদের নেক্সাস সিরিজের যন্ত্রের জন্য বাজারে এ বিশেষ চার্জার নিয়ে এলেও অন্যান্য স্মার্টফোনের জন্য এমন চার্জার বাজারে আসবে কি না, এ বিষয়ে কিছু জানায়নি গুগল। তবে সত্যিকার অর্থেই যদি অন্যান্য স্মার্টফোনের জন্য এমন চার্জার বাজারে আনা যায়, সেটি দারুণ এক ব্যাপার হবে বলে মনে করছেন স্মার্টফোন বাজার বিশেষজ্ঞরা।

অনলাইনে ছবি তোলার প্রতিযোগিতা

মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আজিয়াটা লিমিটেড তাদের ফেসবুক পেজে (facebook.com/ robifanz) ‘অনলাইন ফটোগ্রাফি স্কুল কনটেস্ট’ চালু করছে। ১৪ নভেম্বর থেকে দৃক গ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা শহীদুল আলমের সহযোগিতায় ‘রবি ফটো স্কুল কনটেস্ট’ নামের এ প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। আলোকচিত্র বিষয়ে শহীদুল আলমের কৌশল ও পরামর্শসংবলিত ছোট ছোট ভিডিও টিউটোরিয়াল থাকছে এতে। প্রতিটি ভিডিওরই আলাদা আলাদা বিষয় রয়েছে। যেমন: পোট্রেট, স্ট্রিট ফটোগ্রাফি, ডেইলি লাইফ, ল্যান্ডসস্কেপ ইত্যাদি। প্রতিটি ভিডিওর পর রবি ফেসবুক ফ্যানদের তোলা ছবি আপলোড করার আমন্ত্রণ জানানো হবে। কমেন্টস বিভাগে ছবি আপলোড করার নিয়ম দেওয়া আছে। অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিরা যেন ভোট পান, এ জন্য ছবিটি নির্ধারিত একটি ছকে উপস্থাপন করা হবে। এ প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জনকারী ব্যক্তি বৃত্তি নিয়ে ‘পাঠশালা’ (দৃক গ্যালারি) থেকে ফটোগ্রাফির ওপর এক বছরের প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন। সর্বোচ্চ ভোটে নয়, বিচারকদের রায়ে বিজয়ী নির্বাচন করা হবে। আরও দুই বিজীয় ভোটের ভিত্তিতে পুরস্কার পাবেন। পুরস্কার হিসেবে আছে ক্যানন ইওএস ৬০ডি এবং ইওএস ৬০০ডি ক্যামেরা। এ কার্যক্রম শেষে ছবিগুলো ধানমন্ডির দৃক গ্যালারিতে প্রদর্শন করা হবে।

বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৩

স্মার্টওয়াচেও বিশ্বসেরা স্যামসাং!

স্মার্টফোনের বাজারে বিশ্বসেরা প্রতিষ্ঠানটি এবার স্মার্টওয়াচ বা স্মার্ট হাতঘড়িতেও বিশ্ব সেরা হওয়ার দাবি করেছে। গ্যালাক্সি গিয়ার হাতঘড়ি জনপ্রিয় হওয়ার কারণে সম্প্রতি নিজেদের জনপ্রিয় স্মার্টওয়াচ নির্মাতা হিসেবেও দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
স্যামসাংয়ের দাবি, তাদের তৈরি গ্যালাক্সি গিয়ার বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্মার্টওয়াচ। মাত্র দুই মাসে আট লাখ ইউনিট গ্যালাক্সি গিয়ার বিক্রি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।
এ প্রসঙ্গে স্যামসাং জানিয়েছে, প্রত্যাশার চেয়েও বাজারে ভালো করেছে গ্যালাক্সি গিয়ার। আগামীতে গ্যালাক্সি গিয়ার স্মার্টওয়াচ নিয়ে তারা আরও প্রচারণা চালানোর পরিকল্পনা করেছে।
গ্যালাক্সি গিয়ার স্মার্টওয়াচ বাজারে আসার পর এ পণ্যটি সমালোচকদের সমালোচনার মুখে পড়েছিল। শুধু ফ্যাশন পণ্য হিসেবে এ হাতঘড়ি কেউ কিনবে না বলেও ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন সমালোচকেরা। স্যামসাং কর্তৃপক্ষও এ পণ্যটি নিয়ে খুব বেশি প্রত্যাশা করেনি।
৩০০ মার্কিন ডলার দামের এ হাতঘড়িটি কেবল গ্যালাক্সি নোট থ্রি স্মার্টফোন সমর্থন করে। এ হাতঘড়ি দিয়ে স্মার্টফোনের মতোই কল করাসহ ইন্টারনেট ব্রাউজ ও ইমেইল আদান-প্রদানও করা যায়। এতে রয়েছে গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম। এতে মাত্র ৭০ টি অ্যাপ্লিকেশন সমর্থন করে।
স্যামসাং কর্তৃপক্ষ গ্যালাক্সি গিয়ারকে আরও জনপ্রিয় করে তুলতে নোট থ্রির পাশাপাশি গ্যালাক্সি এস২, এস৩, এস ৪, এস ফোর মিনি, মেগাসহ স্যামসাংয়ের বেশ কয়েকটি মডেলের সঙ্গে এই হাতঘড়ি ব্যবহার করার সুবিধা যুক্ত করছে।
স্মার্টফোনে আসা বিভিন্ন নোটিফিকেশন ও তথ্য গ্যালাক্সি গিয়ার নামের এ হাতঘড়িতেই দেখে নিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। অর্থাত্ স্মার্টফোনের কাজ হাতঘড়িতেই সেরে ফেলা যাবে। গ্যালাক্সি গিয়ার স্মার্ট ওয়াচের জন্য সফটওয়্যার আপডেটও আনছে প্রতিষ্ঠানটি।
এদিকে মার্কিন বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, ২০১৪ সাল হবে পরিধেয় প্রযুক্তিপণ্যের। প্রায় এক ডজনের অধিক প্রতিষ্ঠান স্মার্টওয়াচ তৈরিতে কাজ করছে যার মধ্যে অ্যাপল, গুগল, মাইক্রোসফটের মতো প্রতিষ্ঠানও রয়েছে। তবে গ্যালাক্সি গিয়ার দিয়ে আগেভাগে বাজার দখলে রেখে পরিধেয় প্রযুক্তিপণ্যের ক্ষেত্রে সবার চেয়ে ব্যবধান বাড়িয়ে রাখতে চাইছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি।

মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৩

রাখাল রোবট!

সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৩

বিক্রয় ডটকমে ফ্রি বিজ্ঞাপন দিয়ে জিতুন সামস্যাং ট্যাব

দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন মার্কেট প্লেস বিক্রয় ডট কম নিয়ে এলো ফ্রি বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতি সপ্তাহে একটি করে সামস্যাং গ্যালাক্সি ট্যাব থ্রি জিতে নেয়ার প্রতিযোগিতা। এ সুযোগ বিক্রয় ডট কমে বিজ্ঞাপন পোস্ট করে যে কেউ নিতে পারবেন।
 প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে বিজ্ঞাপনদাতাকে বিক্রয় ডট কমের নিয়ম অনুযায়ী ছবিসহ একটি বৈধ বিজ্ঞাপন দিতে হবে। বিজ্ঞাপনটি অবশ্যই সঠিক শ্রেণিতে দিতে হবে এবং এটি হতে হবে একটি ব্যক্তিগত বিজ্ঞাপন। একদম নতুন বিজ্ঞাপন দিতে হবে এবং বিদ্যমান কোন বিজ্ঞাপনের নকল বা অনুলিপি হলে সেটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য বিবেচিত হবে না।
অংশগ্রহণকারী প্রতিটি বৈধ বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতিযোগিতায় একটি করে এন্ট্রি পাবেন। তাই বিক্রেতারা যত বেশি বিজ্ঞাপন দিবেন, তাদের সামস্যাং গ্যালাক্সি ট্যাব থ্রি জেতার সম্ভাবনা তত বেড়ে যাবে। বিজয়ীদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হবে এবং সব বিজয়ীর নাম বিক্রয় ডট কমের ফেসবুক পেজে প্রকাশ করা হবে।
www.bikroy.com এই ঠিকানায় ফ্রি বিজ্ঞাপন পোস্ট করা যাবে। ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে পোস্ট করা বিজ্ঞাপন প্রতিযোগিতার জন্য বিবেচিত হবে। এ ছাড়া সারা বছরই নতুন ও ব্যবহৃত পণ্য বেচা কেনা করা যাচ্ছে এই অনলাইন মার্কেটে প্লেসে।

স্যামসাং থ্রিজি পন্য কিনলেই আকর্ষণীয় উপহার!

এখন যেকোন স্যামসাং স্মার্টফোন ক্যাফে থেকে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৮.০, গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এবং গ্যালাক্সি নোট থ্রি এর যেকোন একটি কিনলে গ্রাহকদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় সব উপহার। গ্যালাক্সি নোট ৮.০ এর সাথে গিফট হিসেবে থাকছে ১০,৫০০ টাকা মূল্যের একটি স্যামসাং ডিজিটাল ক্যামেরা (এসটি১৫০এফ) সম্পূর্ণ বিনামূল্যে এবং গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এর সাথে গিফট হিসেবে থাকছে ৭,৭০০ টাকা মূল্যের আরো একটি স্যামসাং ডিজিটাল ক্যামেরা (ইএস৯৫)। আর প্রতিটি স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট থ্রির সাথে গ্রাহকরা পাচ্ছেন একটি আকর্ষণীয় ফ্লিপ কভার। গ্যালাক্সি নোট থ্রি এর বর্তমান মূল্য ৬৯,৯০০ টাকা, গ্যালাক্সি নোট ৮.০ এর মূল্য ৫৩,৫০০ টাকা এবং গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এর মূল্য ৩৫,০০০ টাকা। এই ডিভাইসগুলো উপহারসহ পাওয়া যাচ্ছে দেশের যেকোন স্যামসাং স্মার্টফোন ক্যাফেতে।
বিস্তারিত: বর্তমানে প্রযুক্তি প্রেমীদের সবচেয়ে আকাঙ্খিত ডিভাইস হচ্ছে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট থ্রি, গ্যালাক্সি নোট ৮.০ এবং গ্যালাক্সি ট্যাব ৩। বিশ্বমানের সব অভিনব ফিচার সম্বলিত এই ডিভাইসগুলো ব্যবহার করে থ্রিজির সকল বৈশিষ্ট্য উপভোগ করা সম্ভব হবে। আর এই উপভোগ্যতাকে আরো বাড়িয়ে তুলতে , গ্রাহকদের জন্য এই ডিভাইসগুলোর সাথে স্যামসাং নিয়ে এসেছে আকর্ষণীয় পুরস্কার।
গ্যালাক্সি নোট ৮.০ এর সাথে গিফট হিসেবে এই অভিনব ক্যামেরাটির (এসটি১৫০এফ) ওয়াই-ফাই কানেক্টিভিটির সাহায্যে ব্যবহারকারীরা খুব সহজেই তাদের প্রিয় মুহুর্তের ছবি গুলো বন্ধু এবং প্রিয়জনদের সাথে তৎক্ষণাত শেয়ার করতে পারবেন। গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এর সাথে গিফট হিসেবে থাকছে ৭,৭০০ টাকা মূল্যের আরো একটি স্যামসাং ডিজিটাল ক্যামেরা (ইএস৯৫)। ব্যবহারকারীরা সহজেই এই ক্যামেরার সাথে তোলা ছবিগুলো ট্যাব ৩ তে ট্রান্সফার করে প্রিয় মুহুর্তগুলো স্মরণীয়  করতে পারবেন। আর প্রতিটি স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট থ্রির সাথে গ্রাহকরা পাচ্ছেন একটি ফ্লিপ কভার। ফ্লিপ কভারটি শুধু মাত্র স্মার্টফোন কে আকর্ষণীয় করে তুলে না, একই সাথে সুরক্ষাও প্রদান করে।

অদৃশ্য হওয়ার নতুন প্রযুক্তি

দীর্ঘদিন ধরেই অদৃশ্য হওয়ার প্রযুক্তি উদ্ভাবনে কাজ করে যাচ্ছেন গবেষকেরা। সম্প্রতি কানাডার টরোন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা এমনই এক প্রযুক্তি উদ্ভাবনের দাবি করেছেন যার কল্যাণে কোনো বস্তু রাডারকে ফাঁকি দিতে পারে। সিএনএনের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
কানাডার গবেষকেরা জানিয়েছেন, অদৃশ্য হওয়ার এ প্রযুক্তির নানা ব্যবহার রয়েছে। বিশেষত সামরিক ক্ষেত্রে এ প্রযুক্তি ব্যবহার করা সম্ভব।
অদৃশ্য হওয়ার এই প্রযুক্তি বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর সঙ্গে মানায়। তবে গবেষকেরা এ প্রযুক্তির উন্নয়নে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে যাচ্ছেন। টরোন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা জানিয়েছেন, তাঁরা যে প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন তাতে ক্ষুদ্র অ্যানটেনা রয়েছে। এ অ্যানটেনা ইলেকট্রো-ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি করে এবং রাডার প্রযুক্তিকে ধোঁকা দিতে পারে।
‘ফিজিক্যাল রিভিউ এক্স’ সাময়িকীতে প্রকাশিত গবেষণা সংক্রান্ত নিবন্ধে গবেষকেরা বলেছেন, তাঁরা যে প্রযুক্তি তৈরি করছেন তা আগামীতে মানুষের চোখে বস্তুকে অদৃশ্য করতে সক্ষম হবে। বর্তমানে তাদের এই প্রযুক্তি কেবল বেতার তরঙ্গকে ধোঁকা দিয়ে রাডার থেকে বস্তুকে লুকিয়ে রাখতে পারে। গবেষকেরা বলছেন, তাদের তৈরি প্রযুক্তিতে আলোক তরঙ্গ ঠেকানোর ব্যবস্থা যুক্ত হলে তা মানুষের চোখের সামনেও বস্তুকে অদৃশ্য রাখতে পারবে। গবেষকেরা এ প্রযুক্তি উন্নয়নে কাজ করছেন।
অবশ্য অদৃশ্য পোশাক তৈরির প্রচেষ্টা এটাই প্রথম নয়। এর আগে মার্কিন ও জাপানের গবেষকেরাও অদৃশ্য আলখাল্লা তৈরিতে ভিন্ন ভিন্ন উপায় উদ্ভাবন করেছেন যা এখনও উন্নয়নের পর্যায়েই রয়েছে। গবেষকেরা আশা করছেন, সেদিন আর বেশি দূরে নেই যখন মানুষের চোখের সামনেই কোনো বস্তু থাকবে কিন্তু তা হবে অদৃশ্য।

নকিয়ার নতুন চমক গোল্ডফিঙ্গার!

নতুন নতুন স্মার্টফোন বাজারে আনার মাধ্যমে একের পর এক চমক দেখাচ্ছে ফিনল্যান্ডের মুঠোফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নকিয়া আর নকিয়ার এসব নতুন পণ্যের খবর দিয়ে টুইটারে ইভলিকস নামের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে আগেভাগেই ফাঁস হয়ে যাচ্ছে এর তথ্য। মজার ব্যাপার হলো ইভলিকসের ফাঁস করা অধিকাংশ তথ্য মিলেও যাচ্ছে। সম্প্রতি এ অ্যাকাউন্ট থেকে ফাঁস হয়েছে নকিয়ার নতুন স্মার্টফোন গোল্ডফিঙ্গারের তথ্য।
ইভলিকসের বরাতে এনডিটিভি এক খবরে জানিয়েছে, আগামী বছর স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে জেমস বন্ড স্টাইলের দুইটি মডেলের স্মার্টফোন বাজারে আনতে পারে নকিয়া।
উইন্ডোজ ৮.১ অপারেটিং সিস্টেমনির্ভর নকিয়ার একটি মডেলের স্মার্টফোনের কোড নাম হচ্ছে ‘গোল্ডফিঙ্গার’ ও আরেকটির নাম ‘মানিপেনি’।
জেমস বন্ড ছবি থেকে নাম নেওয়া নকিয়ার এ স্মার্টফোনদুটিতে  প্রথমবারের মতো নকিয়ার থ্রিডি টাচ সেন্সর যুক্ত হতে পারে। অর্থাত্ এ প্রযুক্তির ফলে নকিয়া এসব স্মার্টফোনে হাতের স্পর্শ ছাড়া কেবল হাত নাড়িয়েই তা চালানো যাবে।
অবশ্য আনুষ্ঠানিকভাবে এ স্মার্টফোন বিষয়ে মুখ খোলেনি নকিয়া। এর আগে নকিয়া পাওয়ার ইউজার নামে প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিতব্য মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে ‘লুমিয়া ২০২০’ ও ‘লুমিয়া ১৮২০’ মডেলের পণ্য আনবে নকিয়া। এর মধ্যে লুমিয়া ২০২০ মডেলটি হতে পারে আট ইঞ্চি মাপের ট্যাবলেট কম্পিউটার।

শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৩

কর্মীর বদলে রোবট নিচ্ছে চীন

উল্টে যাবে সূর্য!

সূর্যের চৌম্বকক্ষেত্রের দুই মেরু (উত্তর ও দক্ষিণ) সম্পূর্ণ বিপরীত অবস্থানে চলে যেতে পারে যেকোনো দিন! মার্কিন মহাকাশ সংস্থার (নাসা) গবেষকেরা এমনটিই দাবি করছেন। তবে সম্ভাব্য এ ঘটনার দিনক্ষণ তাঁরা সুনির্দিষ্ট করতে পারেননি। প্রায় প্রতি ১১ বছর পর পরই সূর্যে এই পরিবর্তন ঘটে। তবে পৃথিবীতে এ ধরনের পরিবর্তন এতটা ঘন ঘন নয়। এই গ্রহের চৌম্বকক্ষেত্র সর্বশেষ উল্টেছিল আট লাখ বছর আগে। যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌর-পদার্থবিদ টোড হোয়েকসেমা বলেন, সূর্যের মেরু উল্টে যাওয়ার প্রভাব সমগ্র সৌরজগতেই কমবেশি পড়বে। টেলিগ্রাফ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ভর্তির কর্মশালা

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-২০১৪ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষে অনলাইন-ভর্তি সংক্রান্ত দু’দিনব্যাপী কর্মশালা শুরু হয়েছে।শুক্রবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সিনেট হলে কর্মশালার উদ্বোধন করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন অর রশিদ।
অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, সারা দেশের লাখ লাখ শিক্ষার্থী বিশেষ করে অস্বচ্ছল পরিবার ও পশ্চাৎপদ অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের জন্য উচ্চশিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির ক্ষেত্রে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ।

সেশনজট দূর করে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তথ্য প্রযুক্তি অবলম্বনে কম্প্রিহেনসিভ অনলাইনভিত্তিক ও ডেটাবেজ গড়ে তোলার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়কে নতুন আঙ্গিকে গড়ে তুলতে কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

সম্পূর্ণ মেধার ভিত্তিতে ভর্তি নিশ্চিত করা এবং ভর্তি নিয়ে বাণিজ্যের সুযোগ না থাকে, সেলক্ষ্যে দেশব্যাপী অনলাইনভিত্তিক ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোবাশ্বেরা খানমের সভাপতিত্বে কর্মশালায় আরো বক্তব্য রাখেন প্রো-ভাইস-চ্যান্সেলর (প্রশাসন) প্রফেসর ড. আসলাম ভূঁইয়া, প্রো-ভাইস-চ্যান্সেলর (একাডেমিক) প্রফেসর ড. মুনাজ আহমেদ নূর প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্টার, কলেজ পরিদর্শক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকসহ প্রথম দিনে রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অধিভুক্ত কলেজসমূহের পাঁচশ’ শিক্ষক ও প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।